August 2, 2020

Watch Now
সুন্দরবন লঞ্চ ভ্রমনের বিস্তারিত

সুন্দরবনের লঞ্চ ও খরচ

সুন্দরবনের লঞ্চগুলো সম্পর্কে দেশের বেশীরভাগ পর্যটকেরই অজানা। এগুলো সম্পর্কে ভালো ভাবে প্রচার হয়নি। সুন্দরবন ভ্রমন নিয়েও দেশের পর্যটকদের ভেতর রয়েছে একরকম উদাসীনতা। তাছারা যারা সুন্দরবন ঘুরেছে তাদের কিছু সংখ্যক মানুষ আগে নানান সময়ে প্রতারনার শিকার হয়েছে। ভাড়া অতিরিক্ত বাড়িয়ে দেওয়া, এক লঞ্ছের কথা বলে অন্য লঞ্চে উঠিয়ে দেওয়া, প্যাকেজের সুযোগ সুবিধায় গড়মিল করা এই ঝামেলা গুলো অনেকদিন ধরেই ছিল। ইদানিং সামাজিক গনমাধ্যম ও ইন্টারনেটের বদৌলতে মানুষ ভ্রমন সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে শুরু করেছে।

বিলাসবহুল লঞ্চগুলো সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

 

লঞ্চ কোথা থেকে ছাড়ে ও কতদিন আগে টিকেট কাটা উচিত?

সুন্দরবনের উদ্দেশ্যে লঞ্চ ছাড়ার ২টি জনপ্রিয় জায়গা খুলনার BIWTA ঘাট (IW ঘাট) ও মংলার টুরিস্ট ঘাট। খুলনার IW ঘাটের আশেপাশে ভ্রমন ভিত্তিক কম্পানি আছে যাদের থেকে প্যাকেজ সংগ্রহ করতে পারবেন। কিন্তু দিনে দিনে এসে টিকেট কাটা যাবে না; অবশ্যই অন্তত ৩-৪ দিন আগে বুকিং দেওয়া উচিত। কিন্তু সবচেয়ে ভালো হয় সপ্তাহ খানেক আগে বুকিং দিলে। এছাড়া ভ্রমন মৌসুমগুলিতে লঞ্ছে টিকেট খুঁজে পাওয়া কঠিন হতে পারে, তাই সে সময়গুলিতে ১ মাস আগে থেকে পরিকল্পনা করা ভালো। নতুবা শেষ মুহূর্তে লঞ্চ বিকল্প পাওয়া যাবে খুব কম ও চড়া দামে টিকেট কিনতে হতে পারে।

খুলনা ঘাট
River Launch

কি কি ধরনের লঞ্চ হয়?

সুন্দরবনের লঞ্চগুলির আকার দেশের অনান্য রুটের বিভিন্ন লঞ্চের চেয়ে অনেক ছোট। কারন সুন্দরবনের ভেতরের নদীগুলো একটু সরু প্রজাতির ও গভীরতাও কম।

লঞ্চগুলোকে মুলত ২ ভাগে ভাগ করা যায়- সাধারন লঞ্চ ও টুরিস্ট ভেসেল। সাধারণ গুলো বড়, ছোট, মাঝারি বিভিন্ন জাতের হয়। ধারণক্ষমতা ৩০ থেকে ৮০ এর ভেতরে। টুরিস্ট ভেসেল গুলো একটু ছোট বা মাঝারি ধাঁচের। ৩০ থেকে ৫০ জনের ধারণক্ষমতা ধরে নেওয়া যায়। এগুলার ভেতর টুরিস্ট ভেসল গুলোর মান কিছুটা ভালো।

অন্যদিকে নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত ও বিলাসী লঞ্চ হিসেবে আরও প্রকারভেদ করা যায়। এগুলো সম্পর্কে মোটামটি একটা ভালো ধারনা পেয়ে যাবেন এই প্রবন্ধে।

জনপ্রতি প্যাকেজ মূল্য ও পরামর্শ

যেকোনো লঞ্ছে ভ্রমন সাশ্রয়ী হবে যদি পুরো লঞ্চ একবারে ভাড়া করে ফেলা যায়। কিন্তু সাধারণত যাত্রীরা যেহেতু এত বড় দল নিয়ে ভ্রমন করে না, তাই ছোট ছোট দলের জন্য বিভিন্ন কোম্পানির আওতায় ভ্রমন প্যাকেজ বিক্রি হয়। এ ধরনের প্যাকেজ ছাড়া হয় ২ ভাবে- একটি লঞ্চ কোম্পানিরা নিজেই ছেড়ে থাকে; আরেকটি বিভিন্ন ভ্রমন ভিত্তিক কোম্পানি নানান মৌসুমে লঞ্চ ভাড়া করে ভ্রমন আয়োজন করে থাকে। কিন্তু সরাসরি লঞ্চের মূল কোম্পানি থেকে টিকেট কাটলে কিছুটা সাশ্রয় করা সম্ভব। আবার, মূল কোম্পানির কিছু বাধাধরা রুটপ্লান থাকে, যেখানে একই লঞ্চ ভিন্ন কোম্পানি ভাড়া করে আপনার পছন্দের রুটে ভ্রমন সেবা সরবরাহ করে থাকতে পারে। তাই, সুন্দরবন ভিত্তিক নানান রকমের ভ্রমন সেবা পাবেন।

কিন্তু অবশ্যই মনে রাখবেন- যেকোনো লঞ্চে টিকেট কাটার ব্যাপারে মৌখিক আলোচনার পাশাপাশি লিখিত দলিল জোগাড় করে নিবেন। কারন অনেক সময় ভ্রমন সংস্থারা এক লঞ্চের কথা বলে অন্য লঞ্চ, এক প্যাকেজের কথা বলে অন্য প্যাকেজ, আর শোবার কক্ষ, খাওয়া দাওয়া নিয়েও কথার বরখেলাপি করে থাকে।

সাধারণত মধ্যবিত্ত লঞ্চের প্যাকেজ মূল্য ধরা হয় ৬০০০-১০০০০ এর ভিতর। লঞ্চভেদে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অথবা শুধু পাখা সম্বলিত ১জন, ২ জন ও বহু জনের কক্ষ পাবেন। মধ্যবিত্ত কিছু লঞ্চের ছবি সহ পরিচয় বৃত্তান্ত পাবেন নিচে স্ক্রোল করলে। একটু বিলাসবহুল লঞ্চগুলির প্যাকেজ মূল্য ১০০০০-২৫০০০ এর ভিতর। সাধারণত ঢাকা সুন্দরবন রুটে সর্বোচ্চ সুবিধায় প্রতিজনের ভ্রমন খরচ গড়ে ২৫০০০ করে আর একইরকম সুবিধায় খুলনা/মংলা থেকে ভ্রমন করলে ২০০০০ করে। এ ধরনের লঞ্চগুলির তথ্য পাবেন নিচে স্ক্রোল করলে।

পুরো লঞ্চ ভাড়া সম্পর্কে ধারনা

একটু ছোট আকারের লঞ্চগুলোর ধারণক্ষমতা ৩০ জনের কাছাকাছি। এগুলোর ভাড়া গড়ে ৮০০০০-১০০০০০ করে। মাঝারি ধাঁচের গুলোর ধারণক্ষমতা ৪০-৫০ জনের ভেতর। এগুলোর ভাড়া গড়ে ১২০০০০-১৫০০০০ করে আর একটু বড় ধাঁচের লঞ্চগুলির ধারণক্ষমতা ৬৫-৭০ জনের কাছাকাছি, ক্ষেত্রবিশেষে আরও বেশী। এগুলোর ভাড়া গড়ে ২০০০০০-২৫০০০০ করে।

এগুলোর সাথে লঞ্চের আনুসঙ্গিক খাবারের খরচ ও বনবিভাগের জনপ্রতি কর যোগ হবে।

একটু বিলাসবহুল লঞ্চগুলোর পুরো লঞ্চের ভাড়া ও খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা সহ এদের ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত কোম্পানিরা খরচের হিসাব সরবরাহ করে থাকে। গড়ে এগুলোর ভাড়া ৫০০০০০-৭০০০০০ টাকার ভেতর। অবশ্য একটু ছোট জাতের পরিপাটি লঞ্চগুলোর খরচ ৩০০০০০ টাকার ভেতর।

বিবিধ অনুমতি ও কর সংক্রান্ত খরচ

সুন্দরবনের কিছু অংশ অভয়ারণ্য ও কিছু অংশ অভয়ারণ্যের বাইরে বলে গন্য করা হয়। সাধারণত করমজল ও হাড়বাড়িয়া পর্যটনকেন্দ্রকে অভয়ারণ্যের বাইরে ধরা হয়। এগুলো অঞ্চল ১ দিনেই ঘুরে আসা যায় ও ঠিক লঞ্চ ভাড়া করারও প্রয়োজন নেই। মংলা থেকে হাউজবোট ভাড়া করাই যথেষ্ট হবে। করমজলে প্রবেশ মূল্য জনপ্রতি ২৩ টাকা ও হাড়বাড়িয়ায় জনপ্রতি ৮৭ টাকা। অভয়ারণ্যের বাইরে অন্যান্য অঞ্চলে ভ্রমন খরচ জনপ্রতি ৪০ টাকা।

কিন্তু যেকোনো অভয়ারণ্য অঞ্চলে অন্তত ২ দিনের ভ্রমন প্রযোজ্য। এক্ষেত্রে খরচের হিসাবটা এরকম-

জনপ্রতি ভ্রমন কর– ১৫০ টাকা, ছাত্র ছাত্রিদের জন্য ৩০ টাকা, গবেষকদের জন্য ৪০ টাকা। ভিডিও ক্যামেরা ফি ২০০ টাকা।

১০০ ফুটের ঊর্ধ্বে লঞ্চের প্রবেশ মূল্য ১৫ হাজার টাকা, নবায়ন ফি ৪০০০ টাকা। ৫০ ফুট- ১০০ ফুট লম্বা লঞ্চগুলোর এককালীন প্রবেশ মূল্য ১০ হাজার টাকা, নবায়ন খরচ ৩০০০ টাকা। আর ৫০ ফুটের নিচের জলযানগুলোর প্রবেশ মূল্য ৭০০০ টাকা ও নবায়ন ফি ২৫০০ টাকা। সাধারন ট্রলারের জন্য ৩০০০ টাকা ও নবায়ন খরচ ১৫০০ টাকা প্রযোজ্য। স্পিডবোট প্রবেশ করাতে গুনতে হবে ৫০০০ টাকা ও নবায়ন খরচ ২০০০ টাকা। জালিবোট গুলোর এককালীন প্রবেশ মূল্য ২০০০ টাকা ও নবায়ন ফি ১০০০ টাকা।

হেলিকপ্টার অথবা সিপ্লেনের জন্য এককালীন ৩০ হাজার টাকা।

এছাড়া প্রতিদিন গাইডের জন্য ফি ৫০০ টাকা, বনপ্রহরি সঙ্গে নেওয়ার ফি দৈনিক ৩০০ টাকা, লঞ্চ ক্রু দৈনিক ফি ৭০ টাকা ও টেলিকমিউনিকেশন ফি দৈনিক ২০০ টাকা।

একেবারে সস্তায় লঞ্চ ভ্রমন

সবচেয়ে সস্তায় যে লঞ্চগুলো পাওয়া যায় সেগুলোকে বলা হয় সার্ভিস লঞ্চ। এসবের গুনগত মান ভালো না। ধারণক্ষমতার হিসাবে কিছুটা বড়। শোবার জন্য আলাদা কক্ষ আছে আবার মেঝেতে থাকারও সুযোগ আছে। খাবারে আতিশয্য নেই। জানামতে, টয়লেট ব্যবস্থা ভালো নয়, তার পাশাপাশি টয়লেট সংখ্যাও অপ্রতুল।

এগুলোর ভাড়া গড়ে ৫০০০-৬০০০ টাকা করে। কিছুক্ষেত্রে একটু কম বা বেশী। এ ধরনের লঞ্চ ছাড়ে খুলনার বি-আই-ডবলু-টি-এ ঘাট থেকে। সরাসরি সেখান থেকেই টিকেট সংগ্রহ করতে হবে।

মধ্যবিত্ত পরিবারের উপযোগী কিছু লঞ্চঃ

এম ভি রেইনবো/ M V Rainbow

ব্যবস্থাপকঃ New Rainbow Tours Sundarbans

ধারণক্ষমতা – ৪৮ জন

ভাড়া – ( জনপ্রতি ৬০০০- ৮০০০ টাকা )

৩ তলা বিশিষ্ট লঞের নিচ তলায় টয়লেট সম্বলিত কয়েকটি কক্ষ আছে। এগুলার ভাড়া ৮০০০ করে। দ্বিতীয় তলায় সিঙ্গেল ও ডাবল কক্ষ আছে। এগুলোর সাথে টয়লেট সংযোজিত নয়। নিচ তলায় ৪টি কমন টয়লেট আছে। এগুলোই উপর তলার সবাইকে ব্যবহার করতে হয়। ডাবল কক্ষগুলি একটু বড় আর এগুলোর জনপ্রতি ভাড়া গড়ে ৭০০০ করে। সিঙ্গেল কক্ষগুলি ৬০০০ করে।

যোগাযোগের নম্বরঃ ০১৭১৯০৫৯৬৬৯ , ০৪১-৭৩২১৫০, ০১৭১৬১৬৬০০৯

Rainbow launch interior
Sundarban Rainbow Launchলঞ্চে খাওয়া

এম ভি বনবিলাস/ M V Banbilash

ব্যবস্থাপকঃ Sundarban Holidays Tours & Travels

ভাড়াঃ ৮০০০ টাকা

৩ তলা বিশিষ্ট পরিপাটি লঞ্চ। সিঙ্গেল, ডাবল, বাঙ্কার ব্যবস্থায় কক্ষ আছে। কিছু কক্ষের সাথে টয়লেট সংযোজিত। গড়ে ভাড়া পড়বে ৮০০০ করে।

যোগাযোগঃ ০১৭১১৩৭৭৫৩৬, ০৪১৭২২৫৩৬

www.sundarbanholidaystours.com

সুন্দরবন বনবিলাস
Banbilash বনবিলাসবনবিলাস লঞ্চ

এম ভি ছুটি

ব্যবস্থাপকঃ The Guide Tours Ltd.

একটু ছোট ধাঁচের লঞ্চ। ধারণক্ষমতা ২০ জন। ২ জন ও ৪ জনের ভাগাভাগি কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১১৫৪১৪৫৬

www.guidetours.net

সুন্দরবন ছুটি লঞ্চ
সুন্দরবন এম ভি ছুটি

MV The Vesper

ব্যবস্থাপকঃ The Albatross Tour & Travel Ltd.

ধারণক্ষমতাঃ ৬৬ জন

৩ তলা বিশিষ্ট মাঝারি লঞ্চ। কিছু কক্ষ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। নিচ তলায় টয়লেট সম্বলিত কক্ষ ও উপর তলায় সিঙ্গেল ও ডাবল কক্ষ।

যোগাযোগঃ ০১৭১১৫২৬৮৩৩, ০১৮১৯৮৮৮৮৮৫

www.albatrossbd.blogspot.com

The-Vesper-Sundarbans
দি ভেসপার-The Vesperভেসপার রুম

M.L. Katka Express

ব্যবস্থাপকঃ Mehdi Tourism

ধারণক্ষমতাঃ ৪৪ জন

খরচঃ ৬৫০০-৮৫০০ টাকা

৩ তলা বিশিষ্ট মাঝারি ধাঁচের লঞ্চ। কিছু কক্ষ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। টয়লেট সহ ও ছাড়া বিভিন্ন রকমের কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৫৮০১৬৫০০২

www.mehditourism.com

Katka-Express-Toilet
সুন্দরবন কটকা লঞ্চSundarban-Katka-express

S.B. Ruposhi

 

ব্যবস্থাপকঃ The Guide Tours Ltd.

খুব ছোট। ১২ জন পর্যটক নিয়ে ভ্রমন করার জন্য উপযোগী।

যোগাযোগঃ ০১৭১১৫৪১৪৫৬

www.guidetours.net

সুন্দরবন-রূপসী-লঞ্চ

M.L. Pelican

ব্যবস্থাপকঃ Gypsy Tours & Travels

আকারে ছোট, ৩০ জন পর্যটকের উপযোগী লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও বিহীন কক্ষ আছে। বাঙ্কার বেড ভাগাভাগিরও কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১৪০৭৬৫০২

www.gypsytoursbd.com

 

সুন্দরবন-পেলিকেন-লঞ্চ
Sundarban-Pelican-room

M.L. Suboti

ব্যবস্থাপকঃ Gypsy Tours & Travels

আকারে ছোট, ৩৪ জন পর্যটকের উপযোগী লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও বিহীন কক্ষ আছে। বাঙ্কার বেড ভাগাভাগিরও কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১৪০৭৬৫০২

www.gypsytoursbd.com

Sundarbans-Suboli-launch
সুন্দরবন-সুবতি-লঞ্চ

এম ভি ডিঙ্গি

 

সুন্দরবন- ডিঙ্গি

M.V Zilan/এম ভি জিলান

 

ব্যবস্থাপকঃ The Rainbow Tours

মাঝারি ধাঁচের ৩ তলা বিশিষ্ট লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৯৪১৭৭৬১৬৩, ০১৭১১১১২৩০২

www.therainbowtours.com

MV Zilan-Sundarban
সুন্দরবন লঞ্চ জিলান

 

M.V. Aboshar/অবসর

 

ব্যবস্থাপকঃ

৩ তলা বিশিষ্ট মাঝারি ধাঁচের লঞ্চ। সিঙ্গেল, ডাবল ও বাঙ্কার বেড ব্যবস্থায় কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ

Sundarbans-Abashar launchSundarbans-Abashar

এম ভি আদিবা খান

একটু বড় আকারের ৩ তলা বিশিষ্ট লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

 

M. L. Mabana Tours

ব্যবস্থাপকঃ Mabana Tours & Travel

ছোট আকারের টুরিস্ট ভেসেল

যোগাযোগঃ ০১৩১১২০০৫০৫, ০১৭১১১১৯৪৯০, ০১৭১৯০৭৫৬৮৬

www.mabanatours.com

 

M. B. Desherban Sundarban

ব্যবস্থাপকঃ Mabana Tours & Travel

ছোট আকারের টুরিস্ট ভেসেল

যোগাযোগঃ ০১৩১১২০০৫০৫, ০১৭১১১১৯৪৯০, ০১৭১৯০৭৫৬৮৬

www.mabanatours.com

 

M.V Discover/ এম ভি ডিসকভার

ব্যবস্থাপকঃ Explore Tourism Corporation(ETC)

মাঝারি ধাঁচের ৩ তলা বিশিষ্ট লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১৩৭২৩০৫০, ০১৯৮৯৯৯৫০০৭

www.exploretourismbd.com

 

M.L Floating Home

ব্যবস্থাপকঃ Explore Tourism Corporation(ETC)

ধারণক্ষমতাঃ ৩০ জন

ছোট আকারের দ্বিতল লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১৩৭২৩০৫০, ০১৯৮৯৯৯৫০০৭

www.exploretourismbd.com

 

এম ভি রাজধানী

এম ভি কোকিলমনি

 

এম ভি খেয়াপার

ধারণক্ষমতাঃ ৭৫ জন

ব্যবস্থাপকঃ The Sundarban Prime Tours

৩ তলা বিশিষ্ট বড় আকারের লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১৬৪০৬৬৪০

www.sundarbanprimetours.com

 

এম ভি বিলাশ ভ্রমন

ব্যবস্থাপকঃ Sundarban United Tours & Travels

বড় আকারের ৩ তলা বিশিষ্ট লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৯১৫২১৯৮৪৭, ০১৭১১৪৪৮২১৩

 

এম ভি মুহয়ী নাফি

ধারণক্ষমতাঃ ৭০ এর অধিক

ব্যবস্থাপকঃ দি সুন্দরবন ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস

 

এম ভি মাছরাঙ্গা

ব্যবস্থাপকঃ The Southern Tours & Travels

ছোট আকারের দ্বিতল লঞ্চ। টয়লেট সম্বলিত ও টয়লেট বিহীন কক্ষ আছে।

যোগাযোগঃ ০১৭১১৩১০৬৪৯

 

এম ভি ঝাণ্ডা ২

ব্যবস্থাপকঃ সুন্দরবন ট্যুরিজম

এম ভি আরিফ মোহাম্মদ ২

ব্যবস্থাপকঃ আশা ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস

৩ তলা বিশিষ্ট বড় লঞ্চ।

 

এম ভি জামাল ১

বিলাসবহুল লঞ্চগুলো সম্পর্কে ধারনা

আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন এই ঠিকানায়

 

Email: info@mrmworld.com

Facebook:

https://www.facebook.com/rashik.haider

https://www.facebook.com/mr.mixer.mm

Share it with your friends!

Exclusive Content

Be Part Of Our Exclusive Community

Become a Patron

STORE

merch

20% Off All Merch

Sponsor Us

Be Part Of Our Exclusive Community

MRM World aspires to build an interactive and educated community. Funding our initiatives is a challenge. You could be a part of it.

Find out more

STORE

merch

Choose from our colourful and exclusive products.

Upto 15% Off